পাকিস্তান সফর নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আজ

পাকিস্তান সফর নিয়ে আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। গতকাল বুধবার বোর্ড পরিচালকদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন তিনি। সেখানে কি আলোচনা হয়েছে তা জানান পাপন।

বৃহস্পতিবারের মধ্যে পাকিস্তান সফর নিয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। তবে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) চাইছে, যেভাবেই হোক টেস্ট সিরিজ খেলতে। টি-টোয়েন্টি সিরিজ প্রয়োজনে পরে খেলবে। কারণ টেস্ট সিরিজ আইসিসি বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ।

পাপন বলেন, সিরিজটি আমাদের পূর্ণাঙ্গ ছিল। তবে তাদের জানিয়েছি, ৩ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলে আমরা চলে আসতে চাই। এসে পরে আবার কোনো একসময় টেস্ট সিরিজের সূচি নতুনভাবে করা যায় কি না, তাদের সঙ্গে এ নিয়েই আলাপ করছিলাম। যদিও তাদের টেস্টের দিকেই বেশি নজর। তারা টেস্ট নিয়ে বেশি আগ্রহী। যেহেতু এটা আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ। ওরা বলছে, টেস্টটাই বেশি গুরুত্বপূর্ণ, টি-টোয়েন্টি আমাদের পরে অন্য সময় খেলতে অসুবিধা নেই। এখন পর্যন্ত এ অবস্থাতে আছে। আমার ধারণা, কালকের (বৃহস্পতিবার) মধ্যে আমরা একটা সিদ্বান্তে আসতে পারব।

খেলোয়াড়রা সূচি নিয়ে কি বলছেন? এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মুশফিক প্রথম থেকে কোনো আগ্রহ দেখায়নি যাওয়ার ব্যাপারে। অন্য যাদের সঙ্গে কথা হয়েছে, তারা বলেছে সূচি ছোট হলেই ভালো হয়। এটা আমরা পিসিবিকে বলেছিলাম। তারা আবার আমাদের পাল্টাভাবে পাঠিয়েছে, আমাদের অনেক খেলোয়াড়, প্রায় সবাই তারা পিএসএলে ৩৫ দিনের জন্য পাকিস্তানের বিভিন্ন জায়গায় থেকে খেলবে। তা হলে কেন জাতীয় দলের জন্য এ কদিন পারবে না। ওটা তো আরো বেশি সময়। আমরা এজেন্সির কাছ থেকে যা যা রিপোর্ট পাওয়ার তা পেয়েছি। তবু আরো অনেক আলাপের ব্যাপার আছে।

কোচিং স্টাফদের বেশিরভাগই যেতে চান না বলেও জানান পাপন। তিনি বলেন, খেলোয়াড়দের তাদের সঙ্গে এখনো কথাবার্তা হচ্ছে। আমরা আশা করছি, আগামীকালের (বৃহস্পতিবার) মধ্যে একটা কিছু সিদ্ধান্তে হয়তো পৌঁছতে পারব। পাকিস্তান তাদের সিদ্বান্ত তো দিয়ে রেখেছেই। আমাদের আসল সমস্যা হচ্ছে, খেলোয়াড়দের সঙ্গে কথা বলে যেটা আমরা বুঝেছি, কোচিং স্টাফদের অনেকেই যাবে না। তবে হেড কোচ বলেছে যাবে। সেও টি-টোয়েন্টির কথা বলেছে। টি-টোয়েন্টিতে যাবে সে। খেলোয়াড় যাদের সঙ্গে কথা বলেছি, তারা সবাই অল্প সময়ের জন্য সফর করতে চায়। সবকিছু বিবেচনা করে আমরা তাদের জানিয়েছি। আমরা টি-টোয়েন্টি খেলে চলে আসব, পরে টেস্ট খেলব। কিন্তু তারা গুরুত্ব দিচ্ছে টেস্টকে। ওরা বলছে, টেস্ট তো আইসিসির অংশ। তাই আগে টেস্ট খেলো, টি-টোয়েন্টি আমরা পরে একসময় আয়োজন করতে পারব।

তিনি বলেন, যেহেতু আমরা এত বছর পাকিস্তানে যাইনি। এটার পেছনে তো অবশ্যই কোনো কারণ আছে। এছাড়া আগে কোনো দেশই যায়নি। সম্প্রতি ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও শ্রীলংকা গিয়েছে। আমাদের খেলোয়াড়দের জন্য এবং টিম ম্যানেজমেন্টের সবার জন্য অনেক দিন পর একটা প্রথম অভিজ্ঞতা। আমরা চিন্তা করেছি, খেলোয়াড়রা টি-টোয়েন্টি খেলে চলে আসবে, তখন যদি ওরা পরিস্থিতি দেখে আত্মবিশ্বাস পায়, যদি মনে করে সব ঠিক আছে। আমরাও মনে করি, আশ্বস্ত হই। সামনে আবার যাব। এটাই এখন পর্যন্ত আমাদের এই অ্যাপ্রোচ আছে।

48 Views

Leave a Replay

এই বিভাগের জনপ্রিয় সব খবর পড়ুন

Follow Us

সর্বশেষ